৯ জনের অ্যাথলেটিকের কাছে হারল বার্সেলোনা

নতুন বছর হতাশায় শুরু হলো বার্সেলোনার। কোপা ডেল রের শেষ ষোলোর প্রথম লেগে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা হেরে গেছে অ্যাথলেটিক বিলবাওর মাঠে। ৯ জনের প্রতিপক্ষের কাছে কাতালান জায়ান্টদের হারের ব্যবধান ২-১ গোলের।
রিয়াল মাদ্রিদের মতো কোপা ডেল রেকে গুরুত্ব না দিয়ে তারকাহীন বার্সেলোনাকে নামানোর কথা ভাবলে ভুল হবে। বৃহস্পতিবার পুরো শক্তিশালী একটি দলকেই অ্যাথলেটিকের মাঠে নামিয়েছিলেন কোচ লুই এনরিকে।

আক্রমণভাগে ছিলেন বার্সার ত্রিশূল- লিওনেল মেসি, নেইমার ও লুই সুয়ারেস। মেসি ও নেইমার অবদান রেখেছেন ঠিক; কিন্তু কাজে আসেনি। আর্জেন্টাইন তারকা একটি গোল শোধ দিয়েছেন। আর ব্রাজিলিয়ান তারকার নৈপুণ্যে অ্যাথলেটিকের দুইজন খেলোয়াড় দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছেড়েছে। কিন্তু শেষ ১৬ মিনিট ১০ জন ও শেষ ১০ মিনিট ৯ জনের অ্যাথলেটিককে পেয়েও মন ভেঙেছে বার্সেলোনার।
অ্যারিজ আদুরিজ ও ইনাকি উইলিয়ামসের গোলে প্রথমার্ধে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় অ্যাথলেটিক। বিরতির কিছুক্ষণ পর মেসি ফ্রি কিক থেকে গোল শোধ দেন। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে রাউল গার্সিয়া ও অ্যান্ডার ইতুরাস্পেকে হারিয়েও বার্সাকে সফলভাবে প্রতিরোধ করে অ্যাথলেটিক।
প্রথম সুযোগ পায় স্বাগতিকরা। একটি কর্নার থেকে মিকেল সান হোসের হেড গোলপোস্টের পাশ দিয়ে চলে যায়। তবে সুবর্ণ সুযোগটি আসে বার্সার পক্ষে। মেসির ক্রস থেকে জেরার্ড পিকের শটও চলে যায় গোলপোস্টের পাশ দিয়ে।
তবে গার্সিয়ার চমৎকার কাউন্টার অ্যাটাক থেকে ২৫ মিনিটে গোলমুখ খোলেন আদুরিজ। মাত্র চার মিনিটের ব্যবধানে ২-০ করে স্বাগতিকরা। আদুরিজের বানিয়ে দেওয়া বলে গোলপোস্টের খুব কাছ থেকে মার্ক আন্দ্রে টার স্টেগানকে পরাস্ত করেন উইলিয়ামস।
প্রথমার্ধের ইনজুরি সময়ে দুইবার পেনাল্টির আবেদন করে বার্সেলোনা। প্রথমবার নেইমার চ্যালেঞ্জের শিকার হলে, এরপর সুয়ারেস। কিন্তু তাদের দাবি প্রত্যাখ্যান করেন রেফারি।
বিরতির আগে দুই দলের মধ্যে বেশ বাগবিতণ্ডা হয়েছে। ফাউলের শিকার হয়ে আদুরিস গলা চেপে ধরেন স্যামুয়েল উমিতির। এ ঝামেলা মেটাতে বেশ সময় লেগেছে বার্সেলোনা খেলোয়াড়দের। কিন্তু দুই খেলোয়াড় শাস্তি পেয়েছে হলুদ কার্ড দেখের্।
বার্সেলোনার প্রথম গোল আসে দ্বিতীয়ার্ধের সপ্তম মিনিটে। ২৫ গজ দূর থেকে মেসির দুর্দান্ত ফ্রি কিক গোলে আশার আলো দেখে সফরকারীরা। অ্যাথলেটিক গোলরক্ষক গোরকা ইরাইজোজ তার শটটি ঠেকিয়ে দিলে ক্রসবারে লেগে লাইন পেরোয়। যদিও স্বাগতিকরা দাবি করেছিল বলটি লাইন পেরোয়নি। কিন্তু রেফারি তাদের প্রত্যাখ্যান করেন।
মেসিকে গোল করতে দিলেন না সান হোসে
৭৪ মিনিটে শক্তিতে পিছিয়ে পড়ে অ্যাথলেটিক। নেইমারকে ফাউল করে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে গার্সিয়া মাঠ ছাড়েন। কিছুক্ষণ পর বার্সেলোনা সমতা ফেরানোর ভালো সুযোগ পেয়েছিল। মেসি বল নিয়ে ডিফেন্ডারদের এড়িয়ে বক্সের মধ্যে ঢুকে গিয়েছিলেন। পায়ের আর একটি ছোঁয়ায় বদলে দিতে পারতেন ম্যাচের ভাগ্য। কিন্তু সান হোসের নিখুঁত ট্যাকলে ব্যর্থ হতে হয় আর্জেন্টাইন তারকাকে।
ইতুরাস্পেকে মাঠ ছেড়ে যেতে হয় ৮০ মিনিটে। এবারও অ্যাথলেটিকের ডি বক্সে ফাউল হন নেইমার। এরপর দুই জন বেশি নিয়ে সমতা ফেরাতে মরিয়া হয়ে ওঠে বার্সা। শেষ মুহূর্তের কর্নারে মেসি সুযোগও পেয়েছিলেন। কিন্তু ভাগ্য আর বদলায়নি।
আগামী বুধবার ন্যু ক্যাম্পে হবে দ্বিতীয় লেগ। রেকর্ড ২৯তম কোপা ডেল রের মুকুট জেতার আশা বাঁচিয়ে রাখতে এনরিকের শিষ্যদের জিততেই হবে ওই ম্যাচ। সূত্র- ইএসপিএনএফসি






Related News

  • এমন গোল কেউ মিস করে? (ভিডিও)
  • সবচেয়ে দামি নেইমার, সাতে রোনালদো
  • আবারো রোনালদোর ভিডিও ভাইরাল
  • পেপে ও বেলের মত রিয়ালের দলের বাইরে রোনালদো
  • ‘রোনালদোর কাছ থেকে মেসির ভদ্রতা শেখা উচিত’
  • ধ্বংস করে দেওয়া হলো মেসির মূর্তি! কেন জানেন?
  • ফিফার বর্ষসেরা একাদশ ঘোষণা, রয়েছেন যারা
  • অনেক চেষ্টা করেও ৯৯৯ মিনিট কোনো গোল করতে পারলেন না নেইমার!