অনেক চেষ্টা করেও ৯৯৯ মিনিট কোনো গোল করতে পারলেন না নেইমার!

স্পোর্টস ডেস্ক: প্রশ্নটা করলে বার্সেলোনা সমর্থকেরা খাতা-কলম নিয়ে বসে যেতে হতে পারে। প্রশ্নের উত্তর যে রীতিমতো গবেষণার ব্যাপার হয়ে দাঁড়াচ্ছে। প্রশ্নটা এই, বার্সেলোনার জার্সিতে সর্বশেষ কবে নেইমার গোল করেছেন?

অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের বিপক্ষে ২-১ গোলে হেরে যাওয়া ম্যাচে বার্সেলোনার গোলটি করেছেন লিওনেল মেসি। তার মানে নেইমারের সর্বশেষ গোল গত বছরে। তা সেটি কবে? ডিসেম্বরে নয়, নভেম্বরেও নয়। বার্সেলোনার জার্সিতে নেইমারকে সর্বশেষ বার গোল উদ্‌যাপন করতে দেখা গেছে অক্টোবরে।

১৯ অক্টোবর, চ্যাম্পিয়নস লিগে ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে বার্সার ৪-০ গোলে জয়ের ম্যাচে। সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ১০ ম্যাচে গোল পাননি ২৪ বছর বয়সী ব্রাজিলিয়ান।

এ তো গেল চ্যাম্পিয়নস লিগ। স্প্যানিশ কোনো প্রতিযোগিতায় নেইমারের গোলের স্মৃতি আরও কিছুদিন বেশি পুরোনো। সর্বশেষ গোল এসেছে অক্টোবরেরই শুরুর দিকে। ৩ অক্টোবর, লিগে

সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে ৪-৩ গোলে হেরে যাওয়া ম্যাচটিতে।

তার মানে ঘরোয়া প্রতিযোগিতায় প্রায় ১৬ ঘণ্টা বা ১৩ ম্যাচ, মিনিটের হিসেবে প্রায় ৯৯৯ মিনিট গোলখরায় ভুগছেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড! নামটা নেইমার বলেই আরও অবিশ্বাস্য লাগছে!

এমএসএন-ত্রয়ীর বাকি দুজন গোল করে যাচ্ছেন। অথচ নেইমার নিষ্প্রভ। অবশ্য এসব সংখ্যা নিয়ে মোটেও চিন্তা নেই লুইস এনরিকের। অন্তত এমনই দাবি বার্সা কোচের, ‘নেইমার খুবই ভালো খেলছে। যদি ওর পুরো ক্যারিয়ার থেকে কিছু পরিষ্কার হয়ে থাকে সেটি হলো ওর মানসিক পরিপক্বতা ও চাপ কাটিয়ে ওঠার ক্ষমতা।

ও অনেক অনেক গোল করবে, এটা নিশ্চিত। আমরা শুধু ইতিবাচক দিকগুলো নিয়েই ভাবি। আর নেইমারকে ঘিরে নেতিবাচকের চেয়ে ইতিবাচক ব্যাপারই বেশি। মৌসুমটা ভালোই কাটছে ওর।’

অবশ্য পরিসংখ্যানের দৃষ্টি আর কোচের চোখে দেখায় তো পার্থক্য থাকবেই। মেসি বার্সেলোনায় ‘ক্রিয়েটর ইন চিফ’, সুয়ারেজের দায়িত্বও গোল করা। তিন ফরোয়ার্ডের মধ্যে নেইমারই বলতে গেলে একমাত্র ‘ডিফেন্সিভ ফরোয়ার্ড’, আক্রমণ গড়ার পাশাপাশি যিনি দলের রক্ষণে, প্রতিপক্ষকে প্রেসিংয়ে অবদান রাখেন অনেক বেশি। তাই নেইমারের গোল স্বাভাবিকভাবে অন্য দুজনের চেয়ে কম হওয়ারই কথা।

কিন্তু তাই বলে টানা ১০ ম্যাচে গোলখরা! সেটির কারণ শুধুই মাঠের খেলার ধরন ও দায়িত্ব দিয়ে বোঝানো যায় না। এই দায়িত্ব তো নেইমার সব সময়ই পালন করেন। হয়তো এখন বার্সার দৃশ্যত ভঙ্গুর মিডফিল্ডের কারণে একটু বেশিই নিচে নেমে খেলতে হয়।
খারাপও খেলছেন না। মাঝমাঠে নেমে প্রতিপক্ষকে চাপে রাখছেন, মাঠে পায়ের কাজে মুগ্ধ করছেন, অন্যদের গোলেও সহায়তা করছেন। শুধু গোলটাই পাচ্ছেন না।

কে জানে, কর ফাঁকির মামলাটা আবার নতুন করে চালু হওয়া, মাঠে তাঁর ডাইভিং নিয়ে বিতর্ক—এসবও নেইমারের মনে কোনো প্রভাব ফেলছে কি না! সূত্র: ইএসপিএন।-প্রথম আলো






Related News

  • সবচেয়ে দামি নেইমার, সাতে রোনালদো
  • আবারো রোনালদোর ভিডিও ভাইরাল
  • পেপে ও বেলের মত রিয়ালের দলের বাইরে রোনালদো
  • ‘রোনালদোর কাছ থেকে মেসির ভদ্রতা শেখা উচিত’
  • ধ্বংস করে দেওয়া হলো মেসির মূর্তি! কেন জানেন?
  • ফিফার বর্ষসেরা একাদশ ঘোষণা, রয়েছেন যারা
  • অনেক চেষ্টা করেও ৯৯৯ মিনিট কোনো গোল করতে পারলেন না নেইমার!
  • ফিফা বর্ষসেরা পুরস্কার ঘোষণা আজ, চূড়ান্ত তালিকায় রয়েছেন যারা